হেফাজতে ইসলামের কমিটিতে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা নেতৃবৃন্দকে ‘বাদ দেওয়া হয়েছে’ অভিযোগ করে অচিরেই ‘নিয়মতান্ত্রিকভাবে’ কাউন্সিল ডেকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করার ঘোষণা দিয়েছেন প্রয়াত আমির আহমদ শফীর বড় ছেলে ইউসুফ বিন আহমদ মাদানী।

আজ মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে হেফাজতের নতুন আমির জুনাইদ বাবুনগরী ও তার মামা মুহিবুল্লাহ বাবুনগরীর দিকে ইংগিত করে ইউসুফ মাদানী বলেন, আহমদ শফীর অস্বাভাবিক মৃত্যুর পর হেফাজতে ইসলামের নামে মামা-ভাগ্নের একটি অবৈধ কাউন্সিল করে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অবৈধ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

ইউসুফ বিন আহমদ মাদানী বলেন, মুহিবুল্লাহ হেফাজতের কোনো দায়িত্বে না থাকলেও তারই আহ্বানে ‘অবৈধ’ কাউন্সিলের মাধ্যমে গঠিত ‘তথাকথিত’ ওই কমিটিতে বাবুনগরীর পারিবারিক সদস্য রয়েছেন ২২ জন।

ইউসুফ বিন আহমদ মাদানী আরও বলেন, নির্বাহী কমিটি তথা মজলিসে আমেলায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করে এবং হেফাজতের গুরুত্বপূর্ণ ৭০ জন কাউন্সিলরকে দাওয়াত না দিয়ে সিন্ডিকেট করে যে কমিটি গঠন করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ অবৈধ ও অসাংবিধানিক। আজকের এই সংবাদ সম্মেলন থেকে আমরা এই অবৈধ কমিটিকে ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি।

আহমদ শফীর পর যিনি হেফাজতের আমির হয়েছেন, তাকে ‘এদেশের জনগণ মেনে নিতে পারে না’ বলেও মন্তব্য করেন ইউসুফ মাদানী।

ইউসুফ বিন আহমদ মাদানী বলেন, আমরা মনে করি, বর্তমান হেফাজত সিন্ডিকেটের মাধ্যমে একটি পকেট কমিটি গঠিত হয়েছে, যেখানে আল্লামা আহমদ শফীর মূল অনুসারী হেফাজতের প্রতিষ্ঠাতা নেতৃবৃন্দকে বাদ দেওয়া হয়েছে।