Breaking News

চাকরির প্রলোভনে নারীকে ধর্ষণ,বাদ যায়নি ৫ বছরের বাচ্চাও

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের কাশমোর জেলায় পাঁচ বছর বয়সী শিশু এবং তার মা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। গত মঙ্গলবার চাকরির দেওয়ার কথা বলে তাদের ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। এই ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কাশমোরের সিনিয়র পুলিশ সুপার (এসএসপি) আমজাদ আলী শেখ।তিনি জানিয়েছেন, ওই নারী ও তার মেয়ের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের নমুনাগুলো এখন ফরেনসিক ও ডিএনএ পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হচ্ছে।

পাকিস্তানের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ভুক্তভোগী দু’জনেই করাচি থেকে কাশমোরে যান। ওই নারী প্রায় এক সপ্তাহ আগে করাচির জিন্নাহ মেডিক্যাল সেন্টারে (জেপিএমসি) একজনকে নিয়ে যান। তখন অভিযুক্ত ব্যক্তি তাকে বলেন, যে তিনি ওই নারীকে কাশমোর টোল প্লাজায় একটি চাকরির ব্যবস্থা করে দেবেন। ওই নারীও তার কথা রাজি হয়ে যায়।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী গত সপ্তাহান্তে কাশমোরে গিয়ে অভিযুক্তের সঙ্গে দেখা করেন। এর দু’দিন পর তিনি কাশমোর পুলিশের কাছে গিয়ে অভিযোগ করেন। অভিযুক্তের বাড়িতে যাওয়ার পরই তাকে ধর্ষণ করা হয়। এরপর অভিযুক্ত ব্যক্তি সিন্ধু-বেলুচিস্তান সীমান্তের কাছে বাস করা আরেক ব্যক্তির হাতে তুলে দেন। ওই নারীর অভিযোগ,ওই ব্যক্তি তাকে ধর্ষণ করে। এমন তথ্য জানিয়েছেন আমজাদ আলী শেখ।

ওই নারী পুলিশকে জানিয়েছেন,তার পাঁচ বছরের কন্যাকে জিম্মি করে রেখেছে অভিযুক্ত।যদি করাচি থেকে অন্য কোনো নারীকে না এনে দেওয়া হয় তাহলে ওই শিশুকে ছাড়া হবে না।অভিযুক্ত ব্যক্তি ওই নারীকে কিছু টাকাও দিয়েছিল করাচি গিয়ে আরো মেয়ে নিয়ে আসার জন্য।

তারপর বুদ্ধি খাটিয়ে ফন্দি এঁটে অভিযুক্তকে আটক করে স্থানীয় পুলিশ।ওই শিশুটিকেও উদ্ধার করা হয়। শিশুটি পুলিশকে জানায়,সেও ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। পুলিশ জানিয়েছে,ওই শিশুর ও নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষ হয়েছে।তাদের নমুনা সংগ্রহ করে ফরেনসিক ও ডিএনএ পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

About ডেস্ক এডিটর

Check Also

আল্লাহ এবং রাসূলকে ভালোবেসে, হিন্দু ত্যাগ করে ইসলাম গ্রহণ করলো মোজিৎ কুমার !

আলহামদুলিল্লাহ। মনোজিৎ কুমার আজ থেকে মুসলিম হিসেবে মোঃ নিরব খাঁন নামে পরিচিত হবেন।নীরব খাঁন ভাই …